(সরকারি, বেসরকারি) অনার্স ভর্তি হতে কত পয়েন্ট লাগবে ২০২৩ ? জেনে নিন

আসসালামু আলাইকুম, প্রিয় শিক্ষার্থীবৃন্দ অনার্স ভর্তি হতে কত পয়েন্ট লাগবে এই সম্পর্কে বিস্তারিত এই নিবন্ধনে আমরা প্রকাশ করছি। ‌ এইচএসসি রেজাল্ট প্রকাশের পর শিক্ষার্থীরা এখন জানতে চাচ্ছে অনার্সে ভর্তির জন্য কত পয়েন্ট লাগবে। ‌ ২৬ নভেম্বর দেশের সকল শিক্ষা বোর্ডের এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ হবার পর শিক্ষার্থীরা এখন গুগলে সার্চ করছে অনার্স ভর্তি পয়েন্ট লিখে। ‌ শিক্ষার্থীরা এখন সকলে জানতে চাচ্ছে সরকারী এবং বেসরকারি কলেজে অনার্স ভর্তির জন্য কত পয়েন্ট লাগবে।

তাই আপনারা যারা অনার্সে ভর্তির জন্য আবেদন করতে চাচ্ছেন তাদের জন্য জানা খুবই জরুরী যে কোন কলেজে ভর্তি হতে কত পয়েন্ট লাগবে। ‌ এ নিবন্ধন থেকে আপনি বিজ্ঞান বিভাগ মানবিক বিভাগ ও ব্যবসা শিক্ষা বিভাগের অনার্স ভর্তি পয়েন্ট জানতে পারবেন। ‌ অনার্সে ভর্তি হতে কত পয়েন্ট লাগবে সে সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পুরো আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়ুন। ‌

অনার্স এর বাংলা অর্থ কি?

অনার্স এর বাংলা অর্থ কি? অনার্স শব্দটি মূলত একটি ইংরেজ শব্দ এর বাংলা অর্থ হলো স্নাতক। এইচএসসি পরীক্ষার পর একজন শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয় পদার্পণের পরে চার বছর অধ্যয়ন করে যে ডিগ্রী অর্জন করে তাকে ইংরেজিতে অনার্স বা বাংলায় স্নাতক বলা হয়।

তবে অনার্সে ভর্তির জন্য শিক্ষার্থীদের একটি নির্দিষ্ট পয়েন্ট থাকা লাগবে। ‌ কেননা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ অনার্সে ভর্তির জন্য পয়েন্ট নির্ধারণ করে দিয়েছে।‌ আজকে আর্টিকেলে আমরা আপনাদের জানাবো অনার্সে ভর্তি হতে কত পয়েন্ট লাগবে তাই পুরো আর্টিকেলটি পড়ুন।

অনার্স কোর্স মূলত চার বছর মেয়াদী। চার বছর পর শিক্ষার্থীদের একটি সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়। ‌ অনার্স মূলত দুই ধরনের হয়ে থাকে ‌। প্রথমটি হল শুধু অনার্স এবং পরের টি হল প্রফেশনাল অনার্স। ‌ অনার্স এবং প্রফেশনাল অনার্স এর ক্ষেত্রে ভর্তি সিস্টেম পুরো আলাদা। মানবিক বিভাগ বিজ্ঞান বিভাগ ও বাণিজ্য বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য আলাদা আলাদা সাবজেক্ট রয়েছে অনার্সে। ‌

অনার্স ভর্তি হতে কত পয়েন্ট লাগবে?

কলেজের গণ্ডি পেরিয়ে শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নের জন্য আবেদন করে থাকে। ‌ তবে বিশ্ববিদ্যালয় জীবনে অনার্স ভর্তি হতে হলে অবশ্যই এসএসসি এবং এইচএসসি পয়েন্ট থাকা জরুরী। ‌ কেননা এ এসএসসি এবং এইচএসসি পরীক্ষার রেজাল্টের উপর ভিত্তি করে অনার্সে ভর্তি হয়। অনার্সে ভর্তি হতে হলে কত পয়েন্ট লাগবে এখন আমরা আপনাদের জানাবো। ‌ সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্ষেত্রে অনার্স ভর্তি পয়েন্ট আলাদা আলাদা হয়ে থাকে। ‌

কলেজের গণ্ডি পেরিয়ে যারা অনার্সে ভর্তি হতে চাচ্ছেন তাদের বলে রাখি আপনি যদি অনার্সে ভর্তি হতে চান তবে অবশ্যই আপনাকে এসএসসি এবং এইচএসসি পরীক্ষায় ভালো ফলাফল থাকা লাগবে তবে আপনি অনার্স ভর্তি হতে পারবেন। ‌ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্ষেত্রে কর্তৃপক্ষ অনার্স ভর্তির জিপিএ নম্বর প্রকাশ করেছে। ‌ এই জিপিএ নম্বরে পর ভিত্তি করে শিক্ষার্থীদের অনার্সে ভর্তি সুযোগ প্রদান করা হবে।

অনার্স ভর্তি হতে কত পয়েন্ট লাগবে

যে সকল শিক্ষার্থী ২০২৩ সালে এইচএসসি পরীক্ষা অংশগ্রহণ করছেন অনার্সে ভর্তি হতে চান ইতোমধ্যে জাতীয় বিষাদের কর্তৃপক্ষ অনার্সে ভর্তি পয়েন্ট নির্ধারণ করে দিয়েছে। ‌ আপনারা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট প্রবেশ করে নোটিশ চেক করলে অনার্স ভর্তি পয়েন্ট জানতে পারবেন। ‌ বিজ্ঞান বিভাগ ও মানবিক বিভাগ ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের জন্য আলাদা আলাদা পয়েন্ট নির্ধারণ করে দিয়েছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

‌ আপনারা যারা বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী রয়েছেন অনার্সে ভর্তি হতে চান তারা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে অনার্সে ভর্তি হতে হলে জিপি নম্বর কমপক্ষে হতে হবে ৭.৫০ ।‌ এসএসসি পরীক্ষার সর্বনিম্ন জিপিএ ৩.৫০ এবং এইচএসসি পরীক্ষা সর্বনিম্ন জিপিএ ৩.৫০ থাকতে হবে। ‌

এই সমন্বিত পয়েন্ট হতে হবে কমপক্ষে ৭.৫০ তবে আপনি বিজ্ঞান বিভাগ থেকে অনার্সে ভর্তি ফরম তুলতে পারবেন বা ভর্তি আবেদন করতে পারবেন। ‌ অনার্স ভর্তির ক্ষেত্রে যে সকল শিক্ষার্থী পয়েন্ট বেশি থাকবে তারাই বেশি মূল্যায়ন পাবে। ‌ তবে কোন ক্ষেত্রে যদি কোন শিক্ষার্থীর জিপিএ নম্বর একই থাকে তবে সে ক্ষেত্রে মার্ক চেক করা হবে। ‌ অর্থাৎ যার মার্ক বেশি থাকবে সে ভর্তির জন্য মূল্যায়ন বেশি পাবে।

কোন কলেজে অনার্স ভর্তি হতে কত পয়েন্ট লাগবে ২০২৩?

এইচএসসি পরীক্ষার পর যে সকল শিক্ষার্থী কলেজে অনার্স ভর্তি হতে চাচ্ছেন তারা অবশ্যই জেনে রাখবেন অনার্সে ভর্তি হতে কত পয়েন্ট লাগবে। ‌ আর এখন আমরা এখানে প্রকাশ করেছি কোন কলেজে অনার্স ভর্তি হতে কত পয়েন্ট লাগবে। ‌ মানবিক বিভাগ থেকে আপনি যদি পড়াশোনা করে থাকেন অনার্সে ভর্তি হতে চান তবে অবশ্যই আপনার কমপক্ষে জিপিএ থাকতে হবে ৭.৫০ ।

এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার জিপিএ ভর্তি করে অনার্সে ভর্তি হয়ে থাকে। এসএসসি পরীক্ষায় সর্বনিম্ন জিপিএ ৩.৫০ এবং এইচএসসি পরীক্ষায় সর্বনিম্ন জিপিএ ৩.৫০ মিলিয়ে সর্বোচ্চ জিপিএ ৭.৫০ থাকলে আপনি অনার্স ভর্তি আবেদন করতে পারবেন ‌। আর যে সকল শিক্ষার্থীর সর্বনিম্ন জিপিএ ৭.৫০ এর কম রয়েছে তারা অনার্সে ভর্তি আবেদন করতে পারবেন না আপনারা ডিগ্রি ভর্তি হতে পারবেন। ‌

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স ভর্তি হতে কত পয়েন্ট লাগবে?

অনেকে এখন জানতে চাচ্ছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অনার্স ভর্তি হতে কত পয়েন্ট লাগবে। আপনাদের সবার কথাই বলে রাখি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অনার্স ভর্তি হতে হলে অবশ্যই আপনাকে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ করতে নির্ধারিত পয়েন্ট অর্থাৎ এসএসসি এবং এইচএসসি পরীক্ষা মিলিয়ে সর্বনিম্ন জিপিএ ৭ (এসএসসি তে কমপক্ষে ৩.৫০ ও এইচএসসি তে কমপক্ষে ৩.৫০ ) পয়েন্ট থাকতে হবে।

তবে আপনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অনার্স ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন। ‌ আবেদন করতে পারলে আপনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন। ‌ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তির ক্ষেত্রে অবশ্যই জিপিএ নম্বরের উপর মার্ক রয়েছে। অর্থাৎ যে শিক্ষার্থী জিপি নম্বর বেশি সেই শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য মূল্যায়ন পাবে বেশি।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স ভর্তি হতে কত পয়েন্ট লাগবে?

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো যারা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় অনার্সে ভর্তি হতে চাচ্ছেন তারা মানবিক বিজ্ঞান ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগ হতে ভর্তির জন্য অনার্স পয়েন্ট কত লাগবে? রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় অনার্সে ভর্তি আবেদন এর জন্য পয়েন্ট লাগবে কমপক্ষে ৭। ‌

এসএসসি এবং এইচএসসি পরীক্ষা মিলিয়ে সর্বনিম্ন জিপিএ ৭. থাকলে আপনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন। ‌ তবে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় জিপিএ নম্বরের উপর কোন মার্ক নেই তাই। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সার্কুলার প্রকাশ করা হলে সেখানে স্পষ্ট ভাবে দেয়া থাকবে ভর্তি আবেদন করতে কত পয়েন্ট লাগবে। ‌